বুয়েটের শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীরা এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা।

আবরার হত্যার ঘটনায় বুয়েট শিক্ষার্থী আন্দোলনের সমাপ্তি

নিউজ ডেস্কঃ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় শুরু হওয়া আন্দোলন আনুষ্ঠানিকভাবে সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে। প্রায় দুই মাস ধরে চলার পর এ আন্দোলনের সমাপ্তি টানা হলো।

বুধবার বুয়েটের শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীরা এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আন্দোলনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। সব দাবি মেনে নেয়ায় সংবাদ সম্মেলনে বুয়েট প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান শিক্ষার্থীরা। সেই সঙ্গে তারা আগামী ২৮ ডিসেম্বর আসন্ন টার্ম পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন বলেও জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মাহমুদুর রহমান সায়েম। তিনি বলেন, এতদিন ধরে একাডেমিক ক্ষেত্রে প্রশাসনকে যে অসহযোগিতা করা হয়েছিল তার সমাপ্তি হলো। এখন থেকে আমরা প্রশাসনকে একাডেমিক কাজে সহায়তা করবো। আগামী ২৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া টার্ম পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবো। আমাদের সব দাবি মেনে নেয়ায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ।

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার জেরে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে গত ৬ অক্টোবর রাতে ডেকে নেয় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর রাত ৩টার দিকে শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

পরদিন ৭ অক্টোবর দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে আবরারের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। নিহত আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। ওই ঘটনায় নিহত আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে চকবাজার থানায় ১৯ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।

এরপর থেকে আন্দোলনে নামেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা।

নাগরিকনিউজ/কেএইচ

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email25