“প্রায়৬৫% কার্ড বিলি হয়েছে-ইসি” ইপিজেডে বিড়ম্বনাহীন ৩৯নং ওয়ার্ডের স্মার্ট জাতীয় কার্ড বিতরণ সম্পন্ন

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ নগরীর ইপিজেড থানা ধীন দীর্ঘ গার্মেন্টস শিল্প-শ্রমিক বান্ধব এলাকায় দীর্ঘ ২৯কার্য্য দিবসের বিশাল কর্ম যজ্ঞর মধ্যদিয়ে সমাপ্ত হল ৩৯নং দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের স্মার্ট জাতীয় কার্ড বিতরণ ।

প্রায় ১লাখ ২৫হাজারের অধিক ভোটারের ছবি যুক্ত আইডি কার্ড ৬৫% বিলি সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে বন্দর জোনের ইসি’র কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যম কে আজ দুপুরে জানান ।আর যারা এই কর্মসূচিতে কার্ড পাননি বা কোন সমস্যার কারণে গ্রহণ করতে পারেন নাই তারা আগামী জানুয়ারী/ফেব্রুয়ারীর শেষ দিকে স্মার্ট জাতীয় কার্ড পাবেন।

নির্বাচন কমিশনরে আঞ্চলিক অফিস বা পাশ্ববর্তী ওয়ার্ডে বিলির সময় দায়িত্বশীল ইসি’র কর্মকর্তার নির্দেশ মোতাবেক স্মার্ট জাতীয় কার্ড প্রদেয় গ্রহন করতে পারবেন বলেও তিনি জানান।কিছু খুটিনাটি সমস্যা ছাড়া সম্পূর্ণ ঝামেলা বিহীন এই কর্ম যজ্ঞ ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী জিয়াউল হক সুমনের পক্ষে কো-অর্ডিনেটর মোঃ সেলিম রেজা তার টিম দিয়ে নির্বাচন কমিশনরের মহতী সেবা কে সর্বাত্মক সহায়তা দেন বলে অভিজ্ঞ ইসি’র কর্তা শহিদুল প্রতিবেদক কে জানিয়েছেন।

১৯শে জুলাই শেষ কার্য্য দিবসে অনেকটা ফাঁকা আর হারানো /ভুল সংশোধন কিংবা নাম-জন্ম তাং,সাল আর ঠিকানা জটিলতার কার্ডের অভিযোগ নিয়ে ভোটাররা কার্ড বিলির স্থান তালতলাস্থ দঃহাঃশহর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসে কাকুতি-মিনতীর দৃশ্যটি বেশী পরিলক্ষিত হয়েছে।
তেমনি একটি সমস্যা নিয়ে আসেন প্রবীন মুক্তিযোদ্ধা এনামুল হক চৌধুরী আসেন তার মেয়ের হারানো কার্ডটির পরবর্তীতে স্মার্ট জাতীয় কার্ড গ্রহন করতে।এসময় এনামুল হক চৌধুরী বলেন,৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের পক্ষেএই কর্মসূচিতে জনগণের সেবা কে পৌছে দিতে সরকারের পক্ষে ব্যাপক উৎসাহ দেখলাম। সত্যিই স্মার্ট কার্ড পেয়ে নিজেকে অনেক গর্ববোধ করছি।

হোন্দল পাড়ার ভোটার গৃহিনী দিলোয়ারা বেগম তার হারানো কার্ডটির পরবর্তীতে স্মার্ট জাতীয় কার্ড গ্রহন করতে নিজেকে যেন মৃত থেকে জীবত ফিরে পেলেন বলে মন্তব্য করেন। তার কার্ড এক স্থানীয় সাংবাদিক এবং সেচ্ছাসেবক আলাউদ্দিন ভাইয়ের মাধ্যমে গ্রহন করায় কাল থেকে চাকুরীর ফিরে পাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

আরেক তথ্য সূত্রে ইসি’র কর্মকর্তা শহিদুল জানান,কর্মসূচিতে ২০১৬ সালের ভোটারের নতুন সহ সকল এবং ২০১৭সালে ভোটারগন ডিসেম্বর/জানুয়ারীর দিকে জাতীয় নির্বাচনের পরে স্মার্ট জাতীয় কার্ড পাবেন। তবে তারা লিষ্ট অনুয়ায়ী ভোটদিতে পারবেন।

এই বিশাল কর্ম যজ্ঞর যারা নির্বাচন কমিশনরের ৩০জন কর্মকর্তা-কমর্চারী ছাড়া ও পুলিশ-আনসার এবং স্থানীয়২৫/৩০জন স্বেচ্ছাসেবক এবং দঃহাঃশহর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ,শিক্ষক,কাউন্সিলর পরিষদ সার্বিক সহায়তা করেছেন বলে স্বীকার করেন।

বিশেষ করে কো-অর্ডিনেটর মোঃ সেলিম রেজা,ইসি’র সহ কর্তা মোঃ জাহিদ, মোঃ জাবের হোসেন,সদস্য আলাউদ্দিন ফারুখ,আনোয়ারুল করিম রুশদী,সাজ্জাদ হোসেন জুয়েল,সাকিল,বেলাল, রাসেল সহ আরো অনেকেই।

উল্লেখ্য যে,গত মে মাসের ২য় সপ্তাহে শুরু হওয়া কর্মসূচির উদ্বোধন করে ছিলেন কাউন্সিলর হাজী জিয়াউল হক সুমন। আগামী ২৩জুলাই সকাল হতে পার্শ্ববর্তী কলসি দিঘী পাড়স্থ ৩৮নংদঃমধ্যম হালিশহর ওয়ার্ডের স্মার্ট জাতীয় কার্ড বিতরণ শুরু হবে ইসি’ বন্দর কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান।

মুকিম // বৃহস্পতিবার ,১৯ জুলাই ২০১৮ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email