২৫ এপ্রিল চট্টগ্রামে এলএনজি গ্যাস সরবরাহ উদ্বোধন

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম, ২৮ ফেব্রæয়ারি বিকালে দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র বোর্ড অব ডাইরেক্টর্স’র ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সাথে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারস্থ বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন-২৫ এপ্রিল চট্টগ্রামে এলএনজি গ্যাস সরবরাহ উদ্বোধন করা হবে। চেম্বার সভাপতি মাহবুুবুল আলম’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ও কর্ণফুলী গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড’র পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন এবং পেট্রোবাংলা চেয়ারম্যান আবুল মনসুর মোঃ ফয়েজউল্লাহ এনডিসি বক্তব্য রাখেন। ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, প্রাক্তন সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আলী আহমেদ, প্রাক্তন পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ ও ডা. মঈনুল ইসলাম, বিজিএমইএ’র প্রাক্তন ১ম সহ-সভাপতি নাসির উদ্দীন চৌধুরী ও প্রাক্তন পরিচালক হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, বিকেএমইএ’র সাবেক পরিচালক শওকত ওসমান, বিএসআরএম’র চেয়ারম্যান আলীহুসেইন আকবর আলী, আবুল খায়ের গ্রæপ’র ইডি ব্রিগে. শহীদুল্লাহ চৌধুরী (অবঃ), কনফিডেন্স সিমেন্টের এমডি জহির উদ্দিন আহমেদ।

এ সময় চেম্বার পরিচালকবৃন্দ মোঃ অহীদ সিরাজ চৌধুরী (¯^পন), মোঃ জহুরুল আলম, ছৈয়দ ছগীর আহমদ, সরওয়ার হাসান জামিল, মোঃ রকিবুর রহমান (টুটুল), অঞ্জন শেখর দাশ, মোঃ শাহরিয়ার জাহান, মোঃ আবদুল মান্নান সোহেল ও ওমর হাজ্জাজ, প্রাক্তন সিনিয়র সহ-সভাপতি এম. এ. ছালাম, প্রাক্তন সহ-সভাপতি এস. এম. শফিউল হক, প্রাক্তন পরিচালকবৃন্দ এস. এম. আবু তৈয়ব, মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, মোঃ আরিফ ইফতেখার ও বেনজির চৌধুরী নিশান, ফিলিপাইনস্’র অনারারী কনসাল এম. এ. আউয়াল, ওম্যান চেম্বারের সহ-সভাপতি জেসমিন আখতার, কেজিডিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী আলী মোঃ আল-মামুন, ইস্পাহানী গ্রæপ’র জিএম মিনহাজ উদ্দিন আহমেদ, সিভিও পেট্রোক্যামিকেল রিফাইনারী লিঃ’র ডিএমডি নিজাম উদ্দিন মাহমুদ হোসেন, ওয়েল গ্রæপ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম (কমু), কর্ণফুলী গ্রæপ’র নির্বাহী পরিচালক মোঃ শহীদুল ইসলাম, বাফার পরিচালক খায়রুল আলম সুজনসহ সরকারী উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন ট্রেডবডি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জ্বালানী উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন-বিদ্যুতের সরবরাহ ব্যবস্থা উন্নয়নের লক্ষ্যে বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধনের পর ১৫ মে থেকে পূর্ণাঙ্গভাবে এলএনজি গ্যাস পাবে চট্টগ্রাম। ফলে গ্যাস সংক্রান্ত সব সমস্যা দূর হবে এবং একই সাথে বিদ্যুতের উৎপাদনও বৃদ্ধি পাবে। তিনি ক্যাপটিভ পাওয়ার স্থাপনের ক্ষেত্রে উৎসাহিত করেন এবং সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে প্রায় ৭০% ব্যয় সাশ্রয়ের পরামর্শ প্রদান করেন। উপদেষ্টা জানান এলএনজি গ্যাসের মূল্য গ্রহণযোগ্য পর্যায়ে রাখার লক্ষ্যে সরকার কর অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে এবং নতুন করে সরবরাহ লাইন ও নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হবে। চট্টগ্রাম সত্যিকার অর্থে হাব এ রূপান্তরিত হবে বলে তৌফিক-ই-ইলাহী দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম গ্যাসের ক্রমবর্ধমান চাহিদার বিপরীতে বর্তমানে রিজার্ভ গ্যাস ও আমদানিকৃত এলএনজি কতটুকু পূরণ করতে সক্ষম হবে সে বিষয়ে গবেষণা ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন। একই সাথে গ্যাসের উৎসস্থল যেখানেই হোক না কেন সমগ্র দেশে ইআরসির মাধ্যমে সমহারে ট্যারিফ নির্ধারণের অনুরোধ জানান। তিনি গ্যাস সংযোগের ক্ষেত্রে ৩ মাসের পরিবর্তে ২ মাসের ট্যারিফ জমা রাখা, নবায়নযোগ্য জ্বালানী খাতের ব্যবস্থা করা, জ্বালানী তেলের মূল্য হ্রাস এবং নতুন গ্যাসকূপ অনুসন্ধান ও উত্তোলনের সুপারিশ করেন। মাহবুবুল আলম তাঁর বক্তব্যে নিরবচ্ছিন্ন ও কোয়ালিটি বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা জরুরী বলে বিদ্যুতের প্রিপেইড বিল প্রদান এবং রক্ষণাবেক্ষণ সেবাকে ভোক্তাবান্ধব করার অনুরোধ জানান। এছাড়া কেজিডিসিএল পরিচালনা পর্ষদে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে চেম্বারের প্রতিনিধিত্ব অন্তর্ভূক্ত করার দাবী জানান। চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ দক্ষিণ চট্টগ্রাম বিশেষ করে কর্ণফুলী উপজেলায় গ্যাস সংযোগ প্রদানের জোর দাবী জানান এবং গৃহস্থালী খাতে গ্যাস সরবরাহ নিয়মিত রাখার অনুরোধ করেন।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ জাকির হোসেন এলএনজি গ্যাসের মূল্য যৌক্তিকহারে নির্ধারণ করা হবে বলে জানান। পেট্রোবাংলা চেয়ারম্যান আবুল মনসুর মোঃ ফয়েজউল্লাহ ব্যবসায়ীদের অতি দ্রুত গ্যাস সংযোগ গ্রহণের আহবান জানান।

সভায় বক্তারা বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারের ক্ষেত্রে আউটসোর্সিং অব্যাহত রাখা, ঘন ঘন বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি না করা, ক্যাপটিভ পাওয়ারের সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে আবেদনের পর নিষ্পত্তির জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা নির্ধারণ, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ, গৃহস্থালী খাতে যারা ইতিমধ্যে অনেক দিন যাবত ডিমান্ড নোট জমা দিয়েছেন কিন্তু সংযোগ পাননি তাদের ক্ষেত্রে সংযোগ প্রদান অথবা জমাকৃত অর্থ ফেরত প্রদান, পার্বত্য চট্টগ্রামে তেল, গ্যাস অনুসন্ধানে পরীক্ষা চালানোর অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email