২০১৮-১৯ অর্থ বছরে বিড়ি, তামাক, জর্দ্দা, গুলে করের হার বাড়াতে হবে: এনবিআর চেয়ারম্যান

আসন্ন বাজেটে সিগারেট চোরাচালান বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া।

সোমবার এনবিআর ভবনের সম্মেলন কক্ষে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের প্রাক বাজেট আলচনায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সিগারেট শিল্প থেকে বড় অংকের রাজস্ব আসে। এটি স্বাস্থ্যেরর জন্য ক্ষতিকর হলেও আপাতত বন্ধ করা যাবে না। এটি বন্ধ করলে চোরাচালান বেড়ে যাবে। অনেকেই বিদেশ থেকে সিগারেট নিয়ে আসে, সেটা বন্ধের ব্যবস্থা করতে হবে। আসন্ন বাজেটে এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

মোশাররফ হোসেন বলেন, সারা বিশ্বেই সিগারেট চলে। সিগারেট ঠেকাতে কারখানা বন্ধ করলে মানুষ অন্য নেশায় ঝুকবে। যেমন ইয়াবা সিগারেটের চেয়ে অনেক বেশি ক্ষতিকর। তবে সিগারেটকে উৎসাহিত করা যাবে না।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, বিড়ি, তামাক, জর্দ্দা, গুল এগুলোতে করের হার বাড়াতে হবে। এসব স্বাস্থ্যের জন্য বেশি ক্ষতিকর। আস্তে আস্তে এগুলো থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

আলোচনায় বৃটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর চেয়ারম্যান গোলাম মইন উদ্দীন, এমডি শেহজাদ মুনির ও ঢাকা টোব্যাকোর প্রতিনিধি বশির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন। আলোচনায় সিগারেট খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা তামাক খাতে কর্পোরেট হার কমানোর দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email