হালদা নদীর মাত্রাতিরিক্ত দূষণ ঠেকাতে একটি পেপার ও বোর্ড মিল বন্ধ ঘোষণা

রুই-কাতলা-মৃগেল মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন ও নিষিক্ত ডিম সংগ্রহের জন্য বিখ্যাত হালদা নদীর মাত্রাতিরিক্ত দূষণ ঠেকাতে একটি পেপার ও বোর্ড মিল বন্ধ ঘোষণা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

রোববার (২৪ জুন) পরিবেশ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের পরিচালক মো. আজাদুর রহমান মল্লিক সাময়িক বন্ধের এ ঘোষণা দেন।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, নগরের অক্সিজেন মোড়ের বায়েজিদ বোস্তামী সড়কের ম্যাক পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস ১৯৯৪ সাল থেকে উৎপাদন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। পরিবেশ ছাড়পত্র ও ইটিপি ছাড়া ‍কারখানাটির অপরিশোধিত তরল বর্জ্যে হালদা দূষণের দায়ে বিভিন্ন সময় পরিবেশ অধিদপ্তর ৪৯ লাখ ৪ হাজার ২২৪ টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটিকে গত ফেব্রুয়ারির মধ্যে অন্য কোনো শিল্পাঞ্চলে স্থানান্তরের নির্দেশ দেওয়া হয়।

কিন্তু প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ অন্যত্র স্থানান্তর করতে না পারায় ইটিপি স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি পরিদর্শনে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা ইটিপি নির্মাণের কোনো কার্যক্রম দেখা যায়নি। এ সময় কারখানা কর্তৃপক্ষ মৌখিকভাবে আরও সময়ের প্রয়োজন বলে মৌখিকভাবে অবহিত করে। কিন্তু তা অগ্রণযোগ্য এবং আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজাদুর রহমান মল্লিক জানান, হাটহাজারী, অক্সিজেন বাইপাস এলাকায় অনন্যা আবাসিক এলাকার মাস্টার ড্রেন নির্মাণে বামনশাহী খালটি বন্ধ করায় ম্যাক পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস লিমিটেডসহ বায়েজিদ এলাকার সব তরল বর্জ্য আগে কর্ণফুলী নদীতে পড়লেও এখন খন্দকিয়া খাল হয়ে হালদায় পড়ছে।

তিনি জানান, পরিবেশ ছাড়পত্র ও ইটিপি ছাড়া কারখানা চালিয়ে হালদা নদী দূষিত করায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৫৫ (সংশোধন, ২০১০) এর ৭ ও ১২ ধারা লঙ্ঘন করায় ম্যাক পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস লিমিটেড ইটিপি নির্মাণ ও ছাড়পত্র না নেওয়া পর্যন্ত রোববার (২৪ জুন) থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email