স্বামীর বর্বর নির্যাতনে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে পারভীনnil,rtv,rtvonline

স্বামীর আদিম বর্বরতার শিকার পারভীন

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের নিজ সুন্দরখাতা গ্রামে স্বামীর আদিম বর্বরতার শিকার পারভীন বেগম এখন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

পুলিশ স্বামী আব্দুল খালেককে আটক করেছে। এ ব্যাপারে ডিমলা থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, নিজ সুন্দরখাতা গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুল খালেক পারভীনের বোন লাভলী বেগমের কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা নিয়ে জমি বন্ধক দেয়।

এ টাকা ফেরত চাওয়ায় আব্দুল খালেক ক্ষিপ্ত হয়ে লাভলীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। একপর্যায়ে পারভীন বেগম স্বামীকে টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চাপ দেয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়।

গেলো শনিবার সকালের দিকে আবারও ঝগড়া শুরু হলে শ্বশুর আবুল কাশেমের নির্দেশে ছেলে আব্দুল খালেক ও তার লোকজন পারভীন বেগমকে রশি দিয়ে ঘরের খুঁটির সঙ্গে বেধে নির্মম নির্যাতন চালায়।

খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ডিমলা হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বর্তমানে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন পারভীন। এ ব্যাপারে পারভীনের ছোট ভাই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে ডিমলা থানায় মামলা করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email