সীতাকুন্ডতে আদিবাসী ত্রিপুরা শিশু কন্যার হত্যাকারীদের  বিচার ও সংখ্যালঘু নির্যাতন বন্ধের দাবী

 

রাজীব চক্রবর্তী :

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার সকাল ১০ ঘটিকায় নগরীর জামালখান চেরাগী পাহাড় চত্ত্বরে সীতাকুন্ড মহাদেবপুর আদিবাসী ত্রিপুরা পল্লীতে দুই শিশু কন্যা ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানব বন্ধনে বক্তারা বলেন, সীতাকুন্ডে আদিবাসী ত্রিপুরা পল্লীতে শিশু কন্যা ধর্ষণের মত ধর্মীয় সংখ্যালঘু স্ত্রী-কন্যাদের উপর প্রতিনিয়ত এসব নেক্কারজনক ঘটনা ঘটে চললেও কোন বিচার হয় না। বিচারহীনতা সংস্কৃতির কারণে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসী গোষ্ঠীরা আস্কারা পেয়ে একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে চলছে। নানান মিথ্যা কাল্পনিক গুজব রটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের অত্যাচার নির্যাতনকারী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের এই পর্যন্ত কোন বিচার হয়নি। একটি চিহ্নিত সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীচক্র চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও হিন্দু মহাজোট নেতা সজীব কুমার সিংহ (রুবেল) এর উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে নির্মমভাবে আহত করে। সন্ত্রাসীচক্র প্রভাব খাটিয়ে সজীব কুমার সিংহের বিরুদ্ধে উল্টো মিথ্যা হয়রানিমূলক চাঁদাবাজী মামলায় গ্রেফতার পূর্বক হয়রানি করার তীব্র নিন্দা জানান। নেতারা বলেন, চট্টগ্রামের কোন এমপি মন্ত্রী এবং প্রশাসনের লোকজন ত্রিপুরা পল্লীর লোমহর্ষক ঘটনা পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থ লোকজনকে সাহায্য সহযোগিতা  না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, টাঙ্গাইলে হিন্দু দম্পতিকে নৃশংসভাবে হত্যার এবং চট্টগ্রামের চকবাজার শিব মন্দিরের সেবায়েত বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর উপর হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানান। আয়োজিত প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধনে বক্তারা সংখ্যালঘুদের জায়গা জমি দখল-বেদখল, সাধুজন ও পুরোহিত এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর চলমান অত্যাচার, নির্যাতন বেড়ে যাওয়ায় ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।
এই সব হত্যাকান্ড, অত্যাচার-নির্যাতনের ব্যাপারে সরকারের উদাসীনতা, নির্লিপ্ততা ও বিচারহীনতার কারনে সন্ত্রাসী এবং জঙ্গীরা উৎসাহিত হচ্ছে। দেশকে সংখ্যালঘু শূণ্য তাদের জায়গা জমি দখলের এবং আত্মসাতের লক্ষ্যে এই ধরণের ঘটনা ঘটাচ্ছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন এবং এহেন ঘটনার বিচার এবং শাস্তি দাবী করেন। বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি এডভোকেট যীশুকৃষ্ণ রক্ষিত এর সভাপতিত্বে এই প্রতিবাদ সভায় সঞ্চালন ছিলেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক এড. আশুতোষ দত্ত নান্টু। প্রতিবাদ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর সহ সভাপতি  তপন চক্রবর্ত্তী, সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী শ্রী জহর লাল চক্রবর্ত্তী, চ.বি প্রফেসর ড. জিনবোধি ভিক্ষু, মুখপাত্র এড. রসিকলাল বৈদ্য, সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন চক্রবর্তী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জি: অজিত দত্ত, কৃষ্ণপদ আচার্য্য, ইঞ্জি: নিকাশ রঞ্জন হোড়, সহ সভাপতি ডা: বিজয় চক্রবর্ত্তী, জ্যোতিষী যীশু আচার্য্য, ডা: সুমন কান্তি দাশ, ইস্কন সন্যাসী তারন নিত্যানন্দ দাস ব্রক্ষচারী, শেষরুখ ব্রহ্মচারী, শ্রীমৎস্বামী সূর্যানন্দ ব্রহ্মচারী, রাসেল দাশ, পলাশ কান্তি নাথ, নয়ন আচার্য্য, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, নিতাই ভট্টাচার্য্য, রবি দাশ কলোনীর মনু রবি দাশ, আকাশ শীল, সুমন কর্মকার, সনাতন সংগঠনের আহ্বায়ক অশোক চক্রবর্তী, সোহেল দাশ, সনাতন একতা মঞ্চের মান্না সেন, বাপ্পারাজ মল্লিক প্রমুখ। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে হিন্দু মহাজোট সহ অন্যান্য সংগঠনের উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email