সাতকানিয়ায় ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে পদদলিত হয়ে ১০ নারী ও শিশু নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা :

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে পদদলীত হয়ে ও অতিরিক্ত গরমে ১০ জনের মৃত্যূ হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে অন্তত ২০/৩০ জন নারী পুরুষ। নিহতদের সবাই নারী বলে জানাগেছে। গুরুত্বর আহত একজনকে চমেক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। গতকাল বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের ঘাটিয়াডাঙ্গা গ্রামে দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্টান ইস্পাত কারখানা চট্টগ্রামের শিল্পপতি ও কবির স্টিল গ্রুপের মালিক মো. শাহজাহানের বাড়ীর পাশে একটি মাদ্রাসা মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করেছেন। তিনি দূর্ঘটনার সংবাদ পাওয়ার পর পরই গতকাল ঘটনাস্থলে পৌঁছে সার্বিক বিষয় তদারকি করেছেন। বর্তমানে এ ঘটনায় সাতকানিয়া জুড়ে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়। নিহতদের ঘরে ঘরে কান্নার রুল পড়ে যায়। মাত্র অল্পকিছু ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে এত নারীর প্রান হানি হবে তা কল্পনার বাইরে বলে মনে করেন এলাকাবসী। সাধারন মানুষের মতে দক্ষিন চট্টগ্রামে এ ধরনের ঘটনা এটি প্রথম।

 

এর আগে গত বছর প্রয়াত চট্টগ্রাম মহানগর আ’লীগের সভাপতি মহিউদ্দিনের কুলখানীতে পদদলিত হয়ে মারা যায় ১৭ জন নারী ও পুরুষ। আহত হয়েছিল অন্তত শতাধিক। এরও ২৫ বছর আগে আ চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্টান আবুল খাইর গ্রুপের দেয়া যাকাতে কাপড় ও টাকা নিতে গিয়ে ভীড়ের চাপে মারা যায় ২০ নারী ও পুরুষ।

এ রির্পোট পদদলিত হয়ে নিহতরা হলেন সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়ার মো. ইসলামের স্ত্রী হাসিনা আক্তার(৩০), লোহাগাড়া উপজেলার কলাউজান ২নং ওয়ার্ডের আবদুস সালামের কন্যা টুনটুনি বেগম (১৫), বান্দরবানের হাইতলীর মোঃ ইব্রাহিমের স্ত্রী নূর আয়েশা (৩০)রিনা বেগম(২০),কুনচুমা বেগম(১৩), রশিদা আক্তার(৫৩), জোৎনা বেগম(২৫), অপর তিন জনের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, চট্টগ্রামের রড উৎপাদনকারী শিল্প প্রতিষ্টান কবির স্টিল (কেএসআরএম) এর মালিক মো. শাহজাহানের বাড়ি চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নে। আসন্ন রমজান কে সামনে রেখে এ প্রতিষ্টানটি মালিক নিজ গ্রামের বাড়িতে গরীর লোকদের মাঝে গতকাল ইফতার সামগ্রী বিতরনের ঘোষনা দেন। এর পরই গতকাল সকাল থেকে চট্টগ্রামের লোহাগাড় থেকে হাজার হাজার নারী পূরুষ তার বাড়িতে এসে ভীড় জমাতে থাকে।

এমন কি পাশ্ববর্তী বান্দরবন, কক্সবাজারের চকরিয়া , পেকুয়া থেকে ও হাজার হাজার নারী পূরুষ এসে জমায়েত হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে সকাল থেকে শিল্পপতির বাড়ির আঙ্গিনায় ইফতার নিতে অন্তত ৩০ থেকে ৪০ হাজার লোকের সমাগম ঘটেছে। ইফতার সামগ্রী বিতরণ শুরু হলে বেলা ১২ টা দিকে হেুড়াহুড়ি করে গেইটে প্রবশের সময় পদদলিত হয়ে নিহত ও আহতের ঘটনা ঘটেছে। নিহতরা সবাই নারী বলে জানা গেছে।

 

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবারক হোসেন জানান, ইফতার সামগ্রী বিতরণের খবর পেয়ে ভোর থেকে হাজার হাজার নারী ভীড় জমায় নলুয়া ইউনিয়নের শিল্পপতি শাহজাহানের বাড়ীর সামনে। বেলা ১২টার দিকে হটাৎ এক সাথে সবাই ঢুকতে গিয়ে পদদলিত হয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) এ কে এম এমরান ভূঁইয়া ঘটনাস্থল থেকে এ তথ্য নিশ্চিত বলেন, ‘৩০-৪০ হাজার নারী পূরুষ ইফতার সামগ্রী নিতে ওই বাড়িতে ভিড় করে। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা ছাড়াও কক্সবাজার জেলা থেকে লোকজন সেখানে আসে।

এদিকে প্রশাসন ও এলাকাবসীর মতে অব্যবস্থাপনা ও অত্যাধিক ভীড়ের কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়েছে।
নলুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাসলিমা আক্তার বলেন,কেএসআরএম কারখানার মালিকপক্ষ প্রতি বছর রোজার আগে স্থানীয় দুস্থতের মধ্যে ইফতারি তৈরির বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেন। এর ধারাবাহিকতায় সোমবার নলুয়ায় ওই মাদ্রাসার মাঠে ইফতার সমাগ্রী বিতরণের ব্যবস্থা হলে সকাল থেকে প্রায় ২০ হাজার লোক জড়ো হয় সেখানে।“অতিরিক্ত ভিড়ের মধ্যে গরম আর চাপাচাপিতে মৃত্যু এ ঘটনা ঘটে।চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নূরে আলম মিনা বলেন, “ভিড়ের মধ্যে অতিরিক্ত গরমে হিট স্ট্রেকে মানুষের মৃত্যূ হয়েছে। পুলিশ এ পর্যন্ত নয়জনের লা উদ্ধার করেছে।”
চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেডকোয়ার্টার রেজাউল মাসুদ জানান, যে নয় জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে, তাদের সবাই নারী। এ ঘটনায় কেএসআরএম কর্তৃপক্ষের বক্তব্য তাৎক্ষণিকভাবে জানতে পারেনি। 

কেএসআরএম ডিজিএম মো. রফিকুল আলম জানান, তাদের কোম্পানির পক্ষ থেকে সকালে দুস্থ-গরিবদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছিল। এ সময় ইফতার সামগ্রী নিতে আসা লোকজনের হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়। এতে হিডস্ট্রোক ও ডিহাইড্রেশনে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ পর্যন্ত ১০ জন নারী মারা যায়। আহত হয়েছে একজন নারী। তিনি বলেন নিহত প্রত্যেকের পরিবার কে তিন লাখ টাকা ও দাফনের জন্য ১০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে নিহত পরিবার সদস্যদের কেউ থাকলে চাকুরী দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email