শরীয়তপুরে নির্মাণ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলা রামরায় কান্দি গ্রামের মোস্তফা গান্ধা (৩৫) নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে গত ২১ মে (সোমবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার দারুল আমান ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের আওরঙ্গ খার গোজা এলাকায় মোস্তফাকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

নিহত মোস্তফা গান্ধা একই গ্রামের মৃত জয়নাল গান্ধার ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর আলী হোসেন মিয়া বাদী হয়ে ডামুড্যা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।

ডামুড্যা থানা পুলিশ জানায়, উপজেলার রামরায় কান্দি গ্রামের মোস্তফা গান্ধা এলাকায় নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতেন। কিছুদিন আগে একই গ্রামের সুজন খান (৩৪) তার বাড়িতে কাজ কারার কথা বলেন। অন্য জায়গায় কাজের কারণে সুজনের কাজ করে দিতে পারেনি মোস্তফা। এ নিয়ে ২১ মে (সোমবার) বিকেলে তাকে সুজন কাজ করে না দেয়ার বিষয় জিজ্ঞাসা করেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরপর ওই দিনই সন্ধ্যা সিরাজের চায়ের দোকানের সামনে সুজন, শাহারুক (২২), জীবন খান (২০) অতর্কিত হামলা চালায় মোস্তফার ওপর। পরে স্থানীরা আহত মোস্তফা উদ্ধার করে প্রথমে ডামুড্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎস্বাধীন অবস্থায় শনিবার সন্ধ্যায় মোস্তফা মারা যায়। হামলাকারীরা চেয়ারম্যান মোক্তার খানের আত্মীয় স্বজন।

নিহতের ভাই হানিফ গান্ধা বলেন, আমরা গরীব মানুষ। দিন আনি দিন খাই। তন্ময় ও সুজন আমার ভাইকে মেরে ফেলেছে। আমি এর বিচার চাই।

এ বিষয়ে ডামুড্যা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার মোস্তফা গান্ধার শ্বশুর ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে গেছেন। নিহত মোস্তফা স্বজনদের মাধ্যমে জানতে পারলাম মোস্তফা গান্ধা শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email