রাজধানীতে ভেজাল ও নকল ওষুধ বিক্রির প্রতারণায় ৫ জনকে কারাদণ্ড ও আট লাখ টাকা জরিমানা

ভেজাল ও নকল ওষুধ বিক্রি এবং প্রতারণার অভিযোগে রাজধানী বাবুবাজারে পাঁচজনকে কারাদণ্ড ও আট লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রায় ১৫ কোটি টাকা মূল্যের নকল ও ভেজাল ওষুধ জব্দ করা হয়।

সোমবার বিকেল ৪টা থেকে মঙ্গলবার ভোররাত ৪টা পর্যন্ত র‌্যাব-৩ ও ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর বাবুবাজারের পাইকারি ওষুধের দোকানে এ অভিযান চালায়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, খায়রুল ইসলাম রবিন (৩০), সুমিত দাস (৩০), দিপু বর্মন (২৫), আবিদ হোসেন (২২) ও আবদুস সাত্তার (৩৬)।

মঙ্গলবার র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম জানান, নকল ভ্যাকসিন, নকল বিদেশি ওষুধ, এমনকি বিক্রয় নিষিদ্ধ সরকারি ওষুধসহ বিপুল পরিমাণ নকল ও ভেজাল ওষুধ জব্দ করা হয়। জব্দকৃত ওষুধের বাজারমূল্য প্রায় ১৫ কোটি টাকা।

তিনি বলেন, কারা কীভাবে সরকারি ওষুধ বাজারে নিয়ে আসে তা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। নকল ওষুধ ভোক্তাদের অধিকার রক্ষার পরিবর্তে ক্ষতি করছে। আটকৃতরা দোষ স্বীকার করায় দুই বছর করে কারাদণ্ড ও মোট আট লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অভিযানে অংশ নেন র‌্যাব-৩ এর উপ-অধিনায়ক মেজর রাহাত, কোম্পানি কমান্ডার মেজর মারুফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়জুলসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ৮০ জন র‌্যাব সদস্য এবং ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের ছয়জন বিশেষজ্ঞ কর্মকতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email