রংপুরে ডাকাতিকালে ডাকাত দলের ২ সদস্য আটক করে গণধোলাই

নিউজ ডেস্কঃ রংপুরে ডাকাতির সময় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের দুই সদস্যকে আটক করে গণধোলাইয়ের পর পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।
আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই দুই ডাকাতকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত একটার দিকে ভুরারঘাট-পালিচড়া সড়কের ছোট ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক ডাকাতরা হলেন, নগরীর সাত নম্বর ওয়ার্ডের কার্তিক মধ্যপাড়া মহল্লার সাবের আলীর ছেলে সেন্টু মিয়া (২৫) এবং বদরগঞ্জ উপজেলার কাজীপাড়ার আব্দুল জব্বারের ছেলে বাবলু মিয়া (৪৭)। বাবলু রংপুর শহরের স্টেশন মণ্ডলপাড়া এলাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন।

কোতোয়ালি থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. দুলাল জানান, সদর উপজেলার পালিচড়া গ্রামের আম ব্যবসায়ী বিপুল, বাবলু, আকতার ও মনছের আলী রংপুর শহর থেকে আম বিক্রি শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। রাত একটার দিকে ভুরারঘাট-পালিচড়া সড়কের ছোট ব্রিজ এলাকায় সংঘবদ্ধ ৭-৮ জনের একদল ডাকাত ওই আম ব্যবসায়ীদের গতিরোধ করে ডাকাতির চেষ্টা চালায়।

এসময় ব্যবসায়ীরা চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন বেরিয়ে আসতে থাকেন।একপর্যায়ে ডাকাতরা পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা ধাওয়া করে দুইজনকে আটকের পর গণধোলাই দিয়ে সদ্য পুস্করিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের কাছে নিয়ে যায়। পরে রাত তিনটার দিকে খবর পেয়ে ওই দুই ডাকাতকে নিয়ে এসে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

সদ্য পুস্করিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহেল রানা জানান, তারা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য। পালিচড়া এলাকার সন্তোষ ও আলমগীর নামে দুই ব্যক্তির সহায়তায় এ ডাকাতির চেষ্টা চালানো হয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক দুই ডাকাত স্বীকার করেছে।

মুকিম // বুধবার, ০৪ জুলাই ২০১৮, ২০ আষাঢ় ১৪২৫, ১৯ শাওয়াল ১৪৩৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email