বাশঁখালীতে পূর্বশত্রুতার জের ধরে বিবাহ অনুষ্ঠানে অতিথিদের উপর সন্ত্রাসী হামলায় সনাতনী সম্প্রদায়ের শিশুসহ ১৫জন আহত

বাশঁখালী প্রতিনিধি-টট্টগ্রাম

গত ১২ই মে রাত্রে একটি বিবাহ অনুষ্টানে যোগদান কালে পতেঙ্গাস্থ কাটগড় হিন্দুপাড়ার সনাতনী সম্প্রদায়ের লোকজন বাশঁখালীর ৫নংকালিপুর ই্উপি’র (লিচু বাগান)এলাকায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসী হামলায় শিশুসহ ১৫/১৭জন আহত হবার খবর পাওয়া গেছে ।

৭দিন পরে চমেক হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে বাড়ী ফিরে কথা গুলো জানান আহত দেবী সেন ,মোবাইল ফোনে ঘঠে যাওয়া ঘটনার বিবরণে দেবী সেন আরো জানান, গত ১২ই মে বিকেলে বড় ভাই দিলীপ দাশের আমন্ত্রনে পতেঙ্গাস্থ কাটগড় হিন্দুপাড়া থেকে ৩০/৪০ জনে বহর নিয়ে বাশঁখালীর ৫নংকালিপুর (ই্উপি)তে জৈনক প্রদীপ দাশের বাড়ীতে বিয়ের অনুষ্টানে যাবার পথে লিচু বাগান এলাকায় ১৭/৮জনের সন্ত্রাসী গ্রুফের তাদের উপর হামলা চালায়।

হামলা চালিয়ে তাদের কাছ থেকে নগদ ২/৩লাখ টাকা,মহিলাদের পরনে থাকা ১০/১২ভরি স্বর্ণালংকার এবং বিবাহে অনুষ্ঠানের নতুন,শাড়ি কাপড়,মালামাল গুলো লুটে নিয়ে যাই বলে বাশঁখালী থানায় গত ১৩মে মামলা নং-১৩১/১৩,তাং১৩/০৫/২০১৮ইং সূত্রে জানা গেছে।

ঐ ঘটনায় মারাত্মক ভাবে আহতরা হলেন-দীলিপ দাশ(৪৫),স্মৃতি দাশ(৩৯)দেবী দাশ(৩০),দিণেশ দাশ(৩৭),দেবীসেন(২৮),সুব্রত সেন(২৫),ঝর্ণা সেন(২৩),সুব্রত দাশ, হারাধন দত্ত,চন্দন দাশ সহ আরো ৭/১০জন শিশু আহত হয়েছেন মর্মে মামলার এজাহার সুত্রে জানান।আহত ব্যক্তিরা জানান,ঐদিন যদি বাশঁখালী থানার পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে না আসতো তাহলে আরো একটি আলোচিত আগুনে পুড়িয়ে মারার জঘন্যতম কর্মকান্ড হয়ে যেতে।

আহতদের নিকট স্বজন ৪০নং ওয়ার্ড আঃলীগ সভাপতি ও পতেঙ্গার সাবেক কাউন্সিলর হাজী আব্দুল বারেক ঘটনাটি ফোনে নিকট পুলিশের এস.আই আতাউর কে জানালে তিনি দ্রুত র্ফোস নিয়ে পরিস্থিতি সমাল দেন।

৫নংকালিপুর ই্উপি’র (লিচু বাগান)এলাকার জৈনক সাগর দাশ,পিতা-শিবুদাশ’এর সাথে আহত দীলিপ দা ‘র পূর্বশত্রুতা ছিল। আর সেটি আমন্ত্রিত কাটগড় হিন্দুপাড়া থেকে অতিথিরা জানতো না। সেই সুযোগে লিচু বাগান এলাকায় ঝুপের ধারে বহিরাগত ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হামলা চালান।

অভিযুক্ত আসামীরা হলেন-১.সাগর দাশ,২-স্বপন দাশ,৩-দিপু দাশ,৪-শিবু দাশ,৫-নীপু দাশ সর্ব পিতা-শ্রী জামিনা দাশ সহ আরো ১০/১৫জন অন্য ধর্মের যুবক এনে দল বেধেঁ হামলা করেন।ঘটনার সত্যতা জানতে বাশঁখালী থানার কর্তব্যরত পুলিশ অফিসার জানান,ঐঘটনায় একটি জিডি নং১৩১/১৩ এং পরে নিয়মিত মামলা দায়ের হয়েছে। আর আসামীদের ধরার ব্যাপারে কাজ চলছে।
মামলার তদন্ত কর্তা এস.আই আ্তাউর জানান,খবর পেয়ে ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে না নির্দিশষ্ট ঠিকানায় গিয়ে আসামীদের পাইনি। কবে আমরা ঠিক সময়ে না পৌছালে মারাত্ম্ক দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারতো ।

থানার সেকেন্ড অফিসার ওঐঘটনার বিষয়টি উচ্চ পর্যায়ে অবগত করেছেন বলে জানান।তবে কিবিষয়ে পূর্বশত্রুতা ছিল তা এখনো জানা য়াই নি।

এদিকে এই অপ্রীতিকর সন্ত্রাসী হামলা,নারী-শিশু নির্যাতন,লিচু বাগান এলাকায় হাত-পা বেধেঁ অত্যাচারের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ৪০নং ওয়ার্ড আঃলীগ সভাপতি ও পতেঙ্গার সাবেক কাউন্সিলর হাজী আব্দুল বারেক কোং।

তিনি জানান,আমাদের এলাকার সনাতন লোকদের উপর বাশঁখালীতে এমন হামলার সুষ্টু বিচার না হলে সরকারের উচ্চ প্রশাসন সহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আইন মন্ত্রী, ভূমিপ্রতি মন্ত্রী,বাশঁখালীর এমপি ,পুলিশের আইজিপি,র্যা ব মহাপরিচালক,চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক,সিটি মেয়র,পুলিশ কমিশনার কে অবগত করে বিচারের অনরোধ জানাবেন ।

তিনি আরো বলেন, বাদী পক্ষের লোকদের ফোনে এবং ভাড়াটে লোকদিয়ে পুড়িয়ে মারার হুমকি ওদিচ্ছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে জানান। তিনি এর যোগ্য প্রতিকার সহ লুট হওয়া টাকা,স্বর্ণ,কাপড়,কাগজ পত্রের ক্ষতিপূরণ দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email