জাতীয় বাজেট ঘোষণা আজ

বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের শেষ বাজেট চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা

‘সমৃদ্ধ আগামী:অগ্রযাত্রার বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে আজ (বৃহস্পতিবার) সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এটি বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের শেষ বাজেট এবং ব্যক্তিগতভাবে অর্থমন্ত্রীর ১২ তম বাজেট।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশন শুরু হবে। দেশের ৪৭তম এ বাজেট জাতীয় সংসদে বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বাজেট পাস হবে ২৮ জুন।

আওয়ামী লীগের গত মেয়াদের (২০০৯-২০১৪) পাঁচটি বাজেটের সঙ্গে এবারের পাঁচটি মিলিয়ে বৃহস্পতিবার টানা দশম বাজেট দিতে যাচ্ছেন আবুল মাল আবদুল মুহিত। এর আগে ১৯৮২-৮৩ এবং ১৯৮৩-৮৪ অর্থবছরের বাজেট পেশ করেন ৮৪ বছর বয়সী এ অর্থমন্ত্রী।

এদিকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটের আকার চলতি অর্থবছরের মূল বাজেটের ৬৪ হাজার ৩০৭ কোটি টাকা বেশি। চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বাজেটের পরিমাণ ছিল ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকা।

বাজেটে ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকার মূল এডিপিসহ মোট উন্নয়ন খরচ ধরা হয়েছে ১ লাখ ৮০ হাজার ৮৬৯ কোটি টাকা। বাকি ২ লাখ ৮৭ হাজার ১৩১ কোটি যাবে বেতন ভাতা সুদ পরিশোধসহ অন্যান্য অনুন্নয়ন খাতে।

আগামী অর্থবছরের জন্য বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে ১ লাখ ২৫ হাজার ২৯০ কোটি টাকা বরাদ্দের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এছাড়াও এবারের বাজেটে জনগণের ওপর কোনো বাড়তি করারোপ করা হবে না বলে ইতোমধ্যে অর্থমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন।

অর্থমন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, প্রতিবারের ন্যায় এবারো ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে বাজেট উপস্থাপন করা হবে।

এদিন বাজেট বক্তৃতা, বাজেটের সংক্ষিপ্তসার, বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি, সম্পূরক আর্থিক বিবৃতি, মধ্য মেয়াদী সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতি বিবৃতি, বিকশিত শিশু: সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, শিশু বাজেট ২০১৮-১৯, ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে অগ্রযাত্রা: হালচিত্র ২০১৮, জলবায়ু সুরক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাজেট প্রতিবেদন ২০১৮-১৯, জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন, সংযুক্ত তহবিল-প্রাপ্তি, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৮, মঞ্জুরি ও বরাদ্দের দাবিসমূহ (পরিচালন ও উন্নয়ন), বিস্তারিত বাজেট (উন্নয়ন), মধ্য মেয়াদী বাজেট কাঠামো এবং রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানসমূহের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট সংক্ষিপ্তসার ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদ থেকে সরবরাহ করা হবে। একই সঙ্গে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ প্রণীত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যাবলী-২০১৭-১৮ জাতীয় সংসদে পেশ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email