প্রশ্নপত্রে দাগ দেওয়ায় শিক্ষার্থী বহিষ্কার হয় কিন্তু প্রশ্নের যিনি জিম্মাদার মন্ত্রী বহিষ্কার হয় না-পীর ফজলুর রহমান

সোমবার সংসদের বৈঠকে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশনেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান।

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য। ‘উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্নীতি হচ্ছে। সুশাসন নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। প্রশ্নপত্র ফাঁসের সুরাহা হচ্ছে না। ১৭ দিনে ১২ টি বিষয়ের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে, এটা লজ্জাজনক।’ তিনি বলেন, ‘প্রশ্নপত্রে দাগ দেওয়ায় চট্টগ্রামের তিনজন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। কিন্তু প্রশ্নের যিনি জিম্মাদার, সেই শিক্ষামন্ত্রীকে বহিষ্কার করা হয় না।’

তিনি বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, যুগে যুগে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে, তাদের সময়ও প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। যুগে যুগে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে কিনা তা জানি না। শিক্ষামন্ত্রী ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছেন কিনা? তবে আমরা ছাত্র থাকার সময় ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দেইনি।’

জাতীয় পার্টির এই সদস্য বলেন, আর্থিক খাতের অব্যবস্থপনার প্রসঙ্গ টেনে পীর ফজলুর রহমান বলেন, ‘আমানতকারীরা ব্যাংকে টাকা রাখতে আতঙ্ক বোধ করছেন। প্রশ্ন করলে অর্থমন্ত্রী উত্তেজিত হয়ে যান, রাগ করেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, উত্তর দেবেন না। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে চেয়ার টেবিল ভেঙে মানুষকে বিদায় করে দেওয়া হয়েছে। ঘুষ দিয়ে পদোন্নতি পাওয়া স্বাভাবিক হয়ে গেছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email