পুঁজিবাজারে উত্থানের পর সূচক পতন হয়েছে

দুই কার্যদিবস উত্থানের পর সপ্তাহের পঞ্চম ও শেষ কার্যদিবসে সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে। দিনভর সূচক পতন শেষে বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক কমেছে ৫৩ পয়েন্ট। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচক কমেছে ৯৬ পয়েন্ট। এদিন সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম ও লেনদেন। তবে তার আগে টানা দুই কার্যদিবস মঙ্গলবার ও বুধবার সূচকের উত্থান হয়েছে।
বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, টানা দুই কার্যদিবস উত্থানের পর সূচক পতন হয়েছে। এটাই পুঁজিবাজারে স্বাভাবিক নিয়ম। এতে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই।

ডিএসইর তথ্য মতে, বৃহস্পতিবার বাজারে ১৪ কোটি ৭৩ লাখ ১২ হাজার ৯৩৩টি সিকিউরিটিজের হাতবদল হয়েছে। এতে লেনদেন দাঁড়িয়েছে ৫১২ কোটি ১৭ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছে ৬২১ কোটি ১৯ লাখ টাকা। তার আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৫০৩ কোটি ৬৬ লাখ ৭৮ হাজার টাকা।

ডিএসই’র তিন সূচকের মধ্যে ব্রড ইনডেক্স আগের কার্যদিবসের চেয়ে ৫২ দশমিক ১০ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৫০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১৯ দশমিক ৬০ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ২৩০ পয়েন্টে এবং শরীয়াহ সূচক ৫ দশমিক ১৮ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪০৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৬টির, কমেছে ২২৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৫টির।

অপরদিকে সিএসইতে সার্বিক সূচক আগের কার্যদিবসের চেয়ে ৯৬ দশমিক ০৫ পয়েন্ট কমে ১১ হাজার ২৯২ পয়েন্টে অবস্থান করছে।
এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি ৭৩ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। এ বাজারে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৮টির, কমেছে ১৬৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email