পদদলিত হয়ে হতাহতের ঘটনায় ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত

রাজু চৌধুরী,চট্টগ্রামঃ

সাতকানিয়ার নলুয়া ইউনিয়নের একটি মাদরাসা মাঠে কেএসআরএম’র মালিক পক্ষ থেকে বিতরণ করা ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে ‘পদদলিত’ হয়ে ১১ নারী নিহতের ঘটনায় ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

কমিটিকে এ মৃত্যুর কারণ উদঘাটনসহ বিস্তারিত প্রতিবেদন দিতে সাত কার্যদিবস সময় বেঁধে দিয়েছেন চট্টগ্রামে জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন।

তিনি জানান, সাতকানিয়ায় ১১ নারীর মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মাশহুদুল কবীরের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাতকানিয়া সার্কেল), জেলা সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি, সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় নলুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

এর আগে সোমবার ১৪ এপ্রিল সকাল সাড়ে দশটার দিকে একটি মাদরাসা মাঠে ইফতার সামগ্রী নিতে এসে অতিরিক্ত ভিড়ের চাপে ‘পদদলিত’ হয়ে ১০ নারীর মৃত্যু হয়। পরে আরো একজনের মৃত্যু হয়,এ সময় আহত হয়েছে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি।

সকালে উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের একটি মাদ্রাসার মাঠে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এমরান ভূঁইয়া। নলুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাসলিমা আক্তার জানান, নিহতদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

তবে নিহতদের অধিকাংশই নারী। ইস্পাত তৈরির প্রতিষ্ঠান কবির স্টিল রোলিং মিলসের (কেএসআরএম) মালিক মো. শাহজাহান প্রতিবছরের মতো এবারও নিজ এলাকার দুস্থ-গরিবদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণের উদ্যোগ নেন। আজ সকাল থেকে নলুয়ায় একটি মাদ্রাসা মাঠে এর আয়োজন করা হয়।

যে সংখ্যক লোক জমায়েত হবে বলে আশা করা হচ্ছিল তার চেয়ে অনেক বেশি লোক জড়ো হয়। এর মধ্য নারীদের সংখ্যাই বেশি। সাতকানিয়া ছাড়া আশপাশের উপজেলা থেকেও অনেক লোক চলে আসে।

ধারণার চেয়ে অনেক বেশি লোক জমায়েত হয়ে যায় মাদ্রাসা মাঠে।আর সেই ভিড়ের মধ্যে মানুষ লাইন না ধরে তাড়াহুড়া করার চেষ্টা করে এবং ইফতার সামগ্রী নেওয়ার চেষ্টা করলে হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে বলেন কেআরএমএসের কর্মকর্তা মো. রফিক।

২০০৭ সালেও একই কোম্পানির পক্ষ থেকে ইফতার সামগ্রী দেওয়ার সময় ছয়জন নিহত হয়েছিলেন। আহত হয় অন্তত ৪০ জন। এদের মধ্যে মোস্তাফা খাতুন (৪০) নামে বাকপ্রতিবন্ধী এক নারীকে বিকেলে চারটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email