নিষেধাজ্ঞার আগে কেনা পেঁয়াজ আসতে পারে বাংলাদেশে

ভারতের রপ্তানি নিষেধাজ্ঞার আগে কেনা পেঁয়াজের চালান বাংলাদেশে আসতে পারে আজ।
গত সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) অভ্যন্তরীণ বাজারে সংকটের কারণে মূল্যবৃদ্ধির অজুহাতে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দেয় ভারত সরকার। এর ফলে হিলি স্থলবন্দরের ভারতীয় অংশে পেঁয়াজ বোঝাই ২৫০-৩০০ ট্রাক আটকা পড়ে।

ভারত থেকে আমদানি না হওয়ায় বন্দরের বাজারগুলোতে পেঁয়াজের দামে দুই দিনে বড় ধরনের প্রভাব পড়ে। কেজি প্রতি ৪০ টাকার পেঁয়াজ মঙ্গলবার ৮০-১০০ টাকা পর্যন্ত বেচা-কেনা হয়।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুন জানান, “বুধবার থেকে পুর্বের টেন্ডারকৃত পেঁয়াজগুলো রফতানির অনুমতি দিতে পারে ভারত সরকার যার ফলে পেঁয়াজ ঢোকার সম্ভাবনা রয়েছে।”এমনটাই ভারতীয় রপ্তানিকারকরা জানিয়েছেন বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, “গত রবিবারে যে সমস্ত এলসির বিপরীতে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়েছে, সেগুলোর পেঁয়াজ রপ্তানি হতে পারে বলে তারা আমাদের মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। তবে এ সংক্রান্ত কোন সরকারি নির্দেশনা এখনও পাননি, তবে নির্দেশনা আসবে বলেও তারা জানিয়েছেন। একই সাথে সোমবার ও মঙ্গলবার যেসমস্ত এলসির বিপরীতে টেন্ডার হয়েছে তার কোন সিন্ধান্ত হয়নি বলে তারা জানিয়েছেন। এতে করে হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকগনের মোট ২শ টনের মতো পেঁয়াজের গত রবিবারে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ রয়েছে সেসব পেঁয়াজ ঢুকতে পারে।”

ভারতের হিলির সিএন্ডএফ এজেন্ট শংকর দাস বলেন, “পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দিতে পারে এমন কথা শোনা যাচ্ছে তবে এখন পর্যন্ত কাস্টমসের ও সরকারি কোন নির্দেশনা আমরা পাইনি। তবে অনুমতি হতে পারে তবে না পাওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছেনা কী হতে পারে। কারন হলো এর আগের বার যখন বন্ধ করে দিলো তখনও এমন শোনা যাচ্ছিল অনুমতি  দিবে কিন্তু সর্বশেষ কোন অনুমতি মিলেনি যার কারনে কোন পেঁয়াজ রপ্তানি হয়নি।”

নাগরিক নিউজ/নাবিলা/এনএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email