ধর্ষণ মামলায় ডিএনএ টেস্ট বাধ্যতামূলক, নারী-শিশু যেকোনো থানায় অভিযোগ করতে পারবে

ধর্ষণ মামলায় ডিএনএ টেস্ট বাধ্যতামূলক, নমুনা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পাঠাতে হবে। ধর্ষণ বা নির্যাতনের শিকার নারী-শিশু যেকোনো থানায় অভিযোগ করতে পারবে।

২০১৫ সালে রাজধানীর খিলক্ষেতে গারো তরুণী ধর্ষণের ২৭ ঘণ্টা পর অভিযোগ গ্রহণ করার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে করা এক রিটের প্রেক্ষিতে রোববার এ রায় দেন হাইকোর্ট।

আজ (রোববার) সকালে রায়টি প্রকাশ করা হয়।

রায়ে বলা হয়েছে, ধর্ষণের শিকার নারীর ডিএনএ টেস্ট বাধ্যমূলক করে ১৮টি নীতিমালাও প্রণয়ন করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। নীতিমালায় নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার তদন্ত বাধ্যমূলক করা হয়েছে।

এর আগে ধর্ষণ পরীক্ষায় টু ফিঙ্গার টেস্ট অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্টের পৃথক আরেকটি বেঞ্চ।

গত ১২ এপ্রিল ধর্ষণ পরীক্ষায় ‘টু ফিঙ্গার টেস্ট’ অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ফাওজিয়া করিম ফিরোজ বলেন, যারা মিথ্যা মামলা করবে তাদের জন্য একটি ওয়ার্নিং। আর যারা সত্যিকার অর্থে ভিকটিম হয়েছেন এ নীতিমালা তাদের উপকারে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email