তিন দিনের বর্ষনে পানি বন্দী টিয়াখালীর হাজারো পরিবার;ফোরলেন সড়ক নির্মাণকাজের জন্য চারটি খালের পানির প্রবাহ বন্ধ

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি॥  পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের অন্তত দেড় হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। তিনদিনের টানা বৃষ্টিতে তারা এমন বন্দীদশায় পড়েছেন। তবে পায়রা বন্দরের সঙ্গে নির্মানাধীন ফোর লেন সড়কের কারণে পানি অপসারনের তিনটি কালভার্ট বন্ধ হয়ে যাওয়া এবং চারটি খালের পানি প্রবাহের পথ বন্ধ হওয়ায় পানি বন্দী হওয়ার প্রধান কারন বলে সচেতনমহলের দাবি।


স্থানীয়রা জানান, ফোরলেন সড়ক করায় হেতালবাড়িয়া স্লুইস সংযুক্ত খালের সঙ্গের কালভার্টের পানি চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এছাড়া চারটি খালের মুখ বন্ধ হয়ে গেছে। টিয়াখালী ইউনিয়নের মাঝখান দিয়ে নির্মানাধীন ফোরলেন সড়ক করায় গোটা ইউনিয়টি এখন পানিবন্দী হয়ে গেছে। এছাড়া বিভিন্ন খালে বাঁধ দেয়াও পানি চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে কোথাও কোমর, কোথাও বুক সমান পানিতে ডুবে আছে অধিকাংশ বাড়িঘর। মানুষের পুকুর, পথ-ঘাট, টয়লেট সব ডুবে একাকার হয়ে গেছে।


ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমান শিমু জানান, এসব পয়েন্টের পানি অপসারনে ঠিকাদার নামে মাত্র চিকন পাইপ দিয়েছে। যা দিয়ে আগামি ১৫দিনেও আটকে থাকা পানি অপসারন হবেনা। তিনি আজ-কালের মধ্যে প্রত্যেক স্পটে অন্তত ১০/১২টি মোটা পাইপ দিয়ে পানি অপসারনের দাবি করেছেন।
পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষ সুত্রে জানা গেছে, দু/একদিনের মধ্যে পানি চলাচলের পথ ক্লিয়ার করার জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। মানুষের দূর্ভোগ কেটে যাচ্ছে। পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক ড. মাছুমুর রহমান জানান, টিয়াখালীর মানুষের ভোগান্তি লাঘবে পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এনিয়ে কোন শঙ্কার কারন নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email