জোঁক আতঙ্কে গাজীপুরের ৩ গ্রামের মানুষ

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরের গোসিঙ্গা ইউনিয়নের পটকা, বাউনি, কর্ণপুর গ্রামের মানুষের মধ্যে জোঁকের আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘরের বাইরে বের হলেই জোঁকে ধরে তাদের।

এতে স্থানীয় গ্রামবাসীদের স্বাভাবিক দৈনন্দিন কাজের বেঘাত ঘটছে। গত কয়েকমাস ধরে এ সমস্যা দেখা দিলেও তা সমাধানে কোনো পথ খোঁজে পাচ্ছেন না তারা। বিশেষ করে মানুষ সতর্ক অবস্থায় থাকলেও গৃহপালিত পশুর ওপর জোঁকের আক্রমণ ঠেকানো যাচ্ছে না।

পটকা গ্রামের কৃষক সাইদুল হক বলেন, জোঁকের কারণে মাঠে কাজ করা যায় না। যেখানে ঘাস আছে সেখান থেকেই জোঁকের আক্রমণ হয়। অনেকটা জোঁকের সঙ্গে আমরা যুদ্ধ করছি।

কর্ণপুর গ্রামের পল্লী পশু চিকিৎসক আব্দুস সাত্তার বলেন, শুধু মাঠে নয়, সড়ক ধরে হাঁটলেও যে কারো অজান্তে জোঁকে ধরে। জোঁকের আতঙ্কে শিশুরা ভয়ে থাকে। পশুর ওপর জোঁকের আক্রমণে এক প্রকার ক্ষতের স্রষ্টি হয়। যার জন্য চিকিৎসা দিতে হয়।

একই এলাকার স্কুলশিক্ষক তানিয়া আকতার বলেন, জোঁকের কারণে বিশেষ করে শিশুদের বেশি সমস্যা হচ্ছে। জোঁকের ভয়ে তাদের এখন মাঠের খেলাধুলা বন্ধ। মাঠে গেলেই জোঁকে ধরে। অনেক অভিভাবক শিশুদের ঘরের বাইরে বের হতে দিচ্ছে না।

গোসিঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান সরকার জানান, তিন গ্রাম নয় তার ইউনিয়নের পুরো এলাকায় জোঁকের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে গত ছয়মাস ধরে এ সমস্যা প্রকট হয়েছে। জোঁকের ভয়ে অনেকেই মাঠে কাজ করতে পারছেন না। গৃহপালিত প্রাণির ওপর আক্রমণ আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে। তাই সবাইকে বাড়ির আশপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার পরামর্শ দিয়েছি। তবে এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে এ বিষয়ে কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি।

এ বিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহমুদুল হক বলেন, জোঁক এক ধরনের রক্তচোষা প্রাণি। মানুষসহ বিভিন্ন প্রাণির দেহ থেকে রক্তগ্রহণ করে জোঁক। এটি মাঝেমধ্যে সতর্কতার অভাবে মানুষের শরীরের ভেতরেও প্রবেশ করে রক্তক্ষরণ ঘটায়। জোঁকের কারণে মানুষসহ প্রাণির শরীরে রক্তশূন্যতা তৈরি হতে পারে। তাই এ বিষয়ে জনসচেতনতা গড়ে তোলা প্রয়োজন।

আমিরুল মুকিম // সোমবার, ৩০ জুলাই ২০১৮ // ১৫ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email