চট্টগ্রাম হেজ শ্রমিকদেরকে গ্যাং বুকিং দেয়ার বিষয়ে মাননীয় সুপ্রীম কোট প্রদত্ত রায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে বলে- সিটি মেয়র

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ চট্টগ্রাম হেজ শ্রমিকদেরকে গ্যাং বুকিং দেয়া,আদালতের রায় মোতাবেক কোস্টার হেজ শ্রমিকদের মজুরি প্রদান এবং ১৯৯৭ সালের চুক্তি বাস্তবায়নের দাবীতে চট্টগ্রাম কোষ্টার হেজ ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়ন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের হাতে স্মারকলিপি প্রদান করেন। আজ সকালে নগর ভবন চত্বরে শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দরা এই স্মারকলিপি প্রদান করেন। এসময় মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি কাজী মাহবুবুল হক চৌধুরী এটলী, আবু হোসেন আবু, কাজী জসিম উদ্দিন,স্বপন দাশ ও চট্টগ্রাম কোষ্টার হেজ ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জেবল হক, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির শফি, জিয়াউল হক বাবুল, মো. শাহাজাহান, আরমান, আজাদ চৌধুরী, সাইদুল হক, ও মনজুরুল আলম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপিতে শ্রমিক নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন,বন্দরের বহিনোঙ্গরে মাদার ভেসেল থেকে মালামাল বোঝাই ও খালাসের একমাত্র প্রতিনিধি হওয়া সত্ত্বেও চট্টগ্রাম বন্দর লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতি ও ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট কার্গো এজেন্টস এসোসিয়েশন অবৈধ শ্রমিক নিয়োগ করে পণ্য খালাস কার্যক্রম চালাচ্ছে। এতে করে কর্মরত কোষ্টার হেজ শ্রমিকরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করা হলে গত ১১ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে আদালত ৩ মাসের স্থগিতাদেশ প্রদান করে।কিন্তু লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতি ও ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট কার্গো এজেন্টস আদালতের নির্দেশ অমান্য করে বেআইনি লোকজনের মাধ্যমে পণ্য খালাস কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ ব্যাপারে আদালত গত ২৬ জুন ২০১৮ তারিখ অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কেন আদালত অবমাননার কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে না তদপ্রেক্ষিতে কারণ দর্শানোর নির্দেশ প্রদান করা হয়। নেতৃবৃন্দ আরো উল্লেখ করেন, ইউনিয়নভুক্ত শ্রমিকগণ তাহাদের প্রাপ্য বকেয়া মঞ্জুরী না পাওয়ায় এবং গ্যাং বুকিং এর অভাবে কর্মহীন হয়ে পড়ায় বর্তমানে অত্যন্ত অসহায় ও মানবেতর অবস্থায় দিনাতিপাত, শ্রমিকদের মাঝে এক প্রকার অসন্তোষ বিরাজ করছে । যা বন্দরের বহিঃনোঙ্গরের শ্রমিকদের জন্য কখনো শুভ পরিণতি বয়ে আনতে পারে না । এই প্রসঙ্গে তারা শ্রমিকদের মাঝে কোন প্রকার অসন্তোষ ও অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি উদ্ভুতের জন্য মালিক পক্ষকে বহন করতে হবে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন। নেতৃবৃন্দ মাননীয় সুপ্রীম কোটের প্রদত্ত রায় কার্যকরের বিষয়ে সিটি মেয়রের সর্বাত্মক সহযোগিতার কামনা করেন ।

স্মারকলিপি গ্রহন করে সিটি মেয়র ইউনিয়নের উদ্দেশ্যে বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে কোষ্টার হেজ শ্রমিকরা নানামুখী হয়রানির শিকার হচ্ছে। এ ব্যাপারে বন্দর লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতি,ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট কার্গো এজেন্টস এসোসিয়েশন,বন্দর চেয়ারম্যান ও শ্রম পরিচালকের বিরুদ্ধে কোষ্টার হেজ শ্রমিক নেতৃবৃন্দের আদালতে দায়েরকৃত রিট পিটিশন মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃক খারিজ করার বিষয়টি আমি ্অবগত হয়েছি। এ ব্যাপারে আদালতের ষ্পষ্ট রায় দেয়া আছে। সিটি মেয়র আগামী কয়েকদিনের মধ্যে শ্রমিক লীগ,আইনজীবী, বন্দর লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতি,ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট কার্গো এজেন্টস এসোসিয়েশন এবং কোষ্টার হেজ ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে নিয়ে সমন্বিত বৈঠক আয়োজনের কথা উল্লেখ করেন। এই বৈঠকে চট্টগ্রাম বারে বিজ্ঞ আইনজীবি সহসংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে চট্টগ্রাম হেজ শ্রমিকদেরকে গ্যাং বুকিং দেয়ার বিষয়ে মাননীয় সুপ্রীম কোট প্রদত্ত রায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে বলে সিটি মেয়র শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে আশ্বাস্থ করেন ।

মুকিম // সোমবার , ১৬ জুলাই ২০১৮,৩১ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email