চট্টগ্রাম নগরী থেকে ইউপিডিএফের ৩ সহযোগী নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম নগরী থেকে ইউনাইঢেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সহযোগী সংগঠনের ৩ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে চট্টগ্রামের ইপিজেড ও বায়েজিত এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতদের মঙ্গলবার সকালে রাঙ্গামাটিতে আনা হয়েছে।

আটকরা হলেন- গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক সুকৃতি চাকমা (৪০), বন্দর থানার সভাপতি কান্তময় চাকমা (৩৫), পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক জিকু চাকমা (২৫)।

পুলিশ জানায়, সোমবার রাতে নানিয়ারচরের ৬ খুনের মামলার তথ্য সাপেক্ষে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার উপপরিদর্শক সৌরজিৎ বড়ুয়া ও গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক আহসানুজ্জামানের নেতৃত্বে চট্টগ্রামের ইপিজেট ও বায়েজিদ এলাকা থেকে তাদের তিনজনকে আটক করা হয়। আটকৃতরা ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী। মঙ্গলবার সকালে তাদের রাঙ্গামাটিতে আনা হয়েছে।

রাঙ্গামাটি জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরির্দক উপ-পরিদর্শক মো. আহসানুজ্জামান জানিয়েছেন, রাতে তাদের মধ্যে দুইজনকে চট্টগ্রাম ইপিজেড ও একজনকে বায়েজিদ এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে। আটকরা ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠন যুব ফোরাম ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মী। আটককৃতদের আদালতে হাজিরের বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

এদিকে মঙ্গলবার ভোররাতে ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠনের তিন নেতাকর্মীকে আটকের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সংগঠনটি দু’টি। মঙ্গলবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি অংগ্য মারমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি বিনয়ন চাকমা এ প্রতিবাদ জানায়।

প্রসঙ্গত, গত ৩ মে রাঙ্গামাটির নানিয়ারচরে উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। পরদিন তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে ব্রাশফায়ারে ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) দলের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমাসহ আরও ৫ জন নিহত হন। এ ঘটনায় ইউপিডিএফ সভাপতি প্রসিত খীসা ও সাধারণ সম্পাদক রবি শংকর চাকমাসহ ১১৮ নামে নানিয়ারচর থানার পৃথক দু’টি অভিযোগ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email