চট্টগ্রামে মুজিবনগর দিবসের আলোচনা তরুণ সমাজকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জ্ঞান-বিজ্ঞানে সম্দ্ধৃ করতে হবে-নাছির উদ্দিন

 

হোসেন বাবলা:

নগর আওয়ামী লীগের সাঃ সম্পাদক ,সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, আমরা যে ভাগ্য ক্রমে একাত্তরে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যুদ্ধ করে এখনও বেঁচে আছি, যারা বেচে আছে তাদের ঈমানী দায়িত্ব, তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধে চেতনায় শানিত করে তাদের জ্ঞান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে সমন্নুত করা । মুজিবনগর সরকার স্বাধীন বাংলাদেশের অস্তিত্বের শিকড়। এই সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিশ্বে বৈধতা পেয়েছে। তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আঙ্গুলি হেলনে নিরস্ত্র বাঙালি হানাদার বাহিনীর অস্ত্র কেড়ে নিয়ে সশস্ত্র হয়ে উঠেছিল। একই ভাবে বাঙালি জাতিসত্তা ও স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিকে রুখতে আমরা সশস্ত্র হয়ে ওঠার হিম্মত রাখি। ১৭এপ্রিল বিকেলে সংগঠনের দারুল ফজল মার্কেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশকে যুদ্ধাপরাধী ও দুবাচার মুক্ত করেছেন। তাকে হত্যার নীলনক্সা থেমে নেই। কারণ দলের মধ্যে এখনও খোন্দকার মোশতাকরা ঘাপটি মেরে আছে। এদেরকে চিহ্নিত করে নিশ্চিহ্ন করতে হবে।
আজ সেই অপছায় থেকে বেড়িয়ে এসে গরীব মানুষের ভাগ্যোন্নয়নের জাগ্রত হতে হবে এবং লুঠেরাদের প্রতিহত করতে হবে। বঙ্গবন্ধু হত্যা পরবর্তী বাংলাদেশকে পাকিস্তানী ভাবধারা পরিচালিত করা হয়েছিল এবং ইতিহাস বিকৃতির অপচেষ্টা করা হয়েছিল। সভাপতির ভাষণে নগর আঃ লীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের উদিত সূর্য। তিনি আরো বলেন, সংকীর্ণতা ও ব্যক্তিস্বার্থ পরিহার করে মানসিকতার পরিবর্তন ঘটিয়ে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার সংকল্পই হলো মুজিবনগর দিবসের তাৎপর্য।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি এড. সুনীল কুমার সরকার, আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব বদিউল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক হাজী মোহাম্মদ হোসেন, কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুর, চাঁন্দগাও ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক এড. আইউব খাঁন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, এড. ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, মশিউর রহমান চৌধুরী, হাজী জহুর আহাম্মদ, আবদুল আহাদ, মো: শহীদুল আলম, জহরলাল হাজারী, নির্বাহী সদস্য এম এ জাফর, নুরুল আলম, কামরুল হাসান বুলু, মহব্বত আলী খান, গৌরাঙ্গ চন্দ্র ঘোষ, বখতিয়ার উদ্দিন খান, সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, বিজয় কিষাণ চৌধুরী, হাজী বেলাল আহাম্মদ, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক, থানা আওয়ামী লীগের সিদ্দিক আলম, মমিনুল হক, আনছারুল হক, রেজাউল করিম কায়সার, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আবুল হাশেম বাবুল, মোছলেম উদ্দিন, সালাউদ্দিন ইবনে আহাম্মদ, মো: জামাল উদ্দিন, মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, আবদুস শুক্কুর ফারুকী, সুলতান আহাম্মদ, সৈয়দ মো: জাকারিয়া, ইসাকান্দর মিয়া, খোরশেদ আলম, নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, মো: জসিম উদ্দিন, মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহবুবুল হক চৌধুরী এটলী, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দিদারুল আলম, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমদ ইমু প্রমুখ।
এছাড়া সকালে দারুল ফজল মার্কেটস্থ কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email