উদ্ধারকৃত ভিকটিমকে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

চকরিয়ায় অপহরণের পাঁচ দিনের পর শিশু উদ্ধার ও দুই অপহরণকারী গ্রেফতার

কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানাধীন এলাকা হতে অপহরণের ৫ দিনের পর ৭ বছরের শিশু তাসফিয়া আক্তার মাইশাকে উদ্ধারসহ ০২ অপহরণকারী গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭।

র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাবের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, ডাকাত, খুনি, বিপুল পরিমান অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২০ এপ্রিল ২০১৮ ইং তারিখে জনৈক আব্দুল গফুর (৪০), গ্রাম-দক্ষিন ঢেমশা, দাইমারখীল, থানা- সাতকানিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামে লিখিত ভাবে অভিযোগ দায়ের করেন যে, গত ১৯ এপ্রিল ২০১৮ ইং তারিখে সময় আনুমানিক ৫ ঘটিকার সময় চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া থানাধীন রাস্তার মাথায় নিজ বাড়ীর সামনে হতে ৭ বছরের শিশু তাসফিয়া আক্তার মাইশাকে কতিপয় অপহরণকারীরা সুকৌশলে ভিকটিমকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে মোবাইলে ফোন করে মুক্তিপণ বাবদ প্রথম পর্যায়ে ২,০০,০০০ টাকা এবং শেষ পর্যায়ে ৭০,০০০ টাকা দাবি করা হয়। দাবীকৃত মুক্তিপণের টাকা না পেলে তারা শিশুটিকে হত্যা করার হুমকি দেয়। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম শিশুটিকে উদ্ধারের লক্ষে ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গত ২৩ এপ্রিল ২০১৮ ইং তারিখ ৮ ঘটিকার সময় মেজর মোঃ রুহুল আমিন এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানাধীন পালাকাটা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অপহরণকারী ১। মোঃ মমিনুল ইসলাম (১৯), পিতা-মোঃ বদিউলি আলম, গ্রাম- পালাকাটা, থানা- চকরিয়া, জেলা- কক্সবাজার এবং ২। মনোয়ারা বেগম (৩৫), পিতা- মৃত আঃ রহমান, স্বামী-শাহাবউদ্দিন, গ্রাম- পালাকাটা, থানা- চকরিয়া, জেলা- কক্সবাজার’দেরকে গ্রেফতার পূর্বক তাদের হেফাজত হতে অপহৃত শিশু তাসফিয়া আক্তার মাইশা (০৭) কে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ভিকটিমকে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সাতকানিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কক্সবাজার জেলার সাতকানিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email