গাজীপুরে বিষ খাইয়ে মেয়ে শিশুকে হত্যার অভিযোগ, মা’সহ তিনজন আটক

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি: গাজীপুরের টঙ্গীর পাগাড় ঝিনু মার্কেট এলাকায় ফাতেমা আক্তার (২) নামে এক শিশুকে আমের জুসের সঙ্গে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা সুফিয়া বেগম (২৮), প্রতিবেশী খোরশেদ আলম (৩৫) ও নানিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়েছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানান, শিশুটির বাবা দুলাল মিয়া প্রায় ৬ মাস আগে তার স্ত্রী সুফিয়া বেগমের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদ ঘটিয়ে টঙ্গী ছেড়ে চলে যান।

২৩ জুলাই সোমবার সকালে সুফিয়া বেগম তার ২ বছর বয়সী শিশুকন্যা ফাতেমাকে তার নানির কাছে রেখে পোশাক কারখানায় চলে যান।

পরে দুলাল মিয়া মেয়েকে দেখতে আসেন এবং আমের জুস খেতে দেন। জুস খাওয়ার পর মেয়েটি কয়েকবার বমি করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। শিশুটির অবস্থার অবনতি হলে তার বাবা দুলাল মিয়া কৌশলে সটকে পড়েন। পরে স্থানীয় লোকজন ও শিশুটির নানি তাকে প্রথমে টঙ্গী ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে মেয়ে হত্যার বিচার চাইতে তার লাশ নিয়ে রাতভর ঘোরাঘুরির পর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় মা সুফিয়া বেগমসহ তার নানি ও প্রতিবেশী খোরশেদ আলম টঙ্গী থানায় আসেন। টঙ্গী থানা পুলিশ শিশুটির লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

মেয়ের মা, নানি ও প্রতিবেশী খোরশেদ আলমকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আটক রাখা হয়।

শিশুটির মা সুফিয়া বেগম কিশোরগঞ্জ জেলার তাড়াইল থানার বেলংকা গ্রামের নাসির উদ্দিনের মেয়ে। আর বাবা দুলাল মিয়া ময়মনসিংহ জেলার বাসিন্দা।

টঙ্গী থানার ওসি মোঃ কামাল হোসেন জানান, তদন্ত চলছে। শিশুটি তার বাবার দেয়া জুস খেয়ে মারা গেছে কি না, তা ময়নাতদন্তে জানা যাবে

আমিরুল মুকিম// বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮// ১১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email