গাজীপুরের হাজীবাগে যৌতুক না পেয়ে শাশুড়িকে পিটিয়ে হত্যা

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি:
গাজীপুরের হাজীবাগে যৌতুক না পেয়ে শাশুড়িকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে জামাতা মনির হোসেনের বিরুদ্ধে।

১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার রাতে শহরের হাজীবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে অভিযুক্ত মনিরসহ তার স্বজনরা।

নিহত সামসুন নাহার (৫০) গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার প্রহলাদপুর গ্রামের মৃত আতাউর রহমান সরকারের স্ত্রী।

অভিযুক্ত জামাতা মনির হোসেন (৩৫) গাজীপুর শহরের হাজীবাগ এলাকার মোঃ জমির উদ্দিনের ছেলে। মনির পেশায় প্রাইভেটকারচালক।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানায়, মনির হোসেনের সঙ্গে তিন বছর আগে সামসুন নাহারের মেয়ে নুরুন নাহার আক্তার সুইটির বিয়ে হয়। তাদের মুনিহা নামে ১৩ মাসের একটি মেয়ে আছে।

বিয়ের সময় সুইটির বাবা মনিরকে নগদ এক লাখ টাকা, আসবাবপত্র ও স্বর্ণের গলা ও কানের গহনা দেন। বিয়ের পর থেকে মনির ও তার পরিবারের সদস্যরা আরও যৌতুকের জন্য নির্যাতন শুরু করে।

গত বুধবার ওয়ারিশের জমি বিক্রি করে টাকা এনে দেয়ার জন্য স্ত্রী সুইটিকে বেদম মারধর করে মনির। পরে শিশু মুনিহাকে রেখে স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয় মনির।

বৃহস্পতিবার মনির শাশুড়িকে ফোন করে সুইটিকে নিয়ে আসতে বলে। আসার পর রাত ১০টার দিকে মনির, তার মা মনোয়ারা, খালা রাহিমা, বিলাতি ও কমলা মিলে যৌতুকের টাকা না দেয়ায় শাশুড়ি নুরুন্নাহারে সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে।

একপর্যায়ে সবাই মিলে নুরুন নাহারকে বেদম মারধর করে এবং গলা টিপে শ্বাসরোধ করে। এতে তিনি নিস্তেজ হয়ে পড়েন। রাত ১১টার দিকে তাকে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জয়দেবপুর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর রাতেই অভিযুক্তরা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email