খালেদা জিয়ার আইনজীবী হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন আইনজীবী ড. কামাল হোসেন

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবী হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে খালেদার জামিনের বিষয়ে পরামর্শ করতে রাজধানীর মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে গিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী রেজাক খান ও আমিনুল ইসলাম।

সেখানে ১ ঘণ্টা অবস্থানের পর দুপুর ১২টায় বেরিয়ে যান তারা। এ সময় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা জানান, আইনি পরামর্শের জন্য তারা ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে দেখা করেছেন। খালেদা জিয়ার আইনজীবী হিসেবে ড. কামাল হোসেনকে চান কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আইনজীবী আমিনুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারেও তার (ড. কামাল) সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, তিনি এখন ক্রিমিনাল কেস করেন না। তবে খালেদা জিয়ার প্রতি তার সহানুভূতি থাকবে।

এর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আখতারুজ্জামানের আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন। সেইসঙ্গে খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামির প্রত্যেককে ১০ বছরের জেল ও জরিমানা করা হয়েছে।

পরে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিলসহ খালেদার জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। মূল রায়সহ ১২২৩ পৃষ্ঠার আপিল আবেদনে ৪৪টি যুক্তি দেখিয়ে খালেদা জিয়ার খালাস চাওয়া হয়েছে। আর ৮৮০ পৃষ্ঠার জামিন আবেদনের মধ্যে ৪৮ পৃষ্ঠাজুড়ে ৩১টি যুক্তিতে খালেদা জিয়ার জামিন চাওয়া হয়।

পরে গেলো ২৫ ফেব্রুয়ারি জামিন আবেদনের শুনানি হয়। এ সময় বিচারিক আদালত থেকে নথি আসার পর খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে বলে জানান বিচারক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email