বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী

একান্ত আলাপকালে গাছবাড়ীয়া এন জে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী

মাহমুদুল হক :

নাগরিক নিউজ বিডি এর সাথে একান্ত সাক্ষাৎ কালে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরীর সাথে। আলোচনা করেছিলাম সভাপতি হওয়ার সময় ও সভাপতি হওয়ার পর ঘটে যাওয়া বিভিন্ন দিক নিয়ে।

তিনি বলেন  ২০০৯ সাল। বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রথম প্রাক্তণ ছাত্রছাত্রী পরিষদের পূণর্মিলণী। আয়োজক কমিটির প্রধান ছিলেন আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী। দুইদিন ব্যাপি এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় হতে পাস করে যাওয়া শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তিরা। সবার আলোচনা সমালোচনায় উঠে আসে পিছিয়ে পড়া গাছবাড়িয়া স্কুলের করুণ অবস্থা।

শিক্ষানুরাগী প্রাক্তণ ছাত্রছাত্রীদের সহযোগিতায় বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ এর নির্বাচনে জয়লাভ করে ১৮ই নভেম্বর, ২০০৯ তারিখে সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন তৎকালীন উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান চেীধুরী। সভাপতির সরলতা ও ব্যস্ততার সীমাবদ্ধতাকে পুজিঁ করে পরিচালনা কমিটির অন্যান্য সদস্যদের স্বার্থান্বেষী মহল তাদের আখের গুছাতে ব্যস্ত ছিলেন। তিনবার নির্বাচিত এই সভাপতি মারা যাওয়ার দিনেই মিটিং ডেকে রাতারাতি সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন তৎকালীন উপজেলা এল ডি পি’র সদস্য মহিউদ্দিন চৌধুরী। চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের হস্তক্ষেপে পরে এই কমিটি বাতিল করে দেওয়া হল।

কমিটি বাতিলের পর ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে নির্বাচনে জয়লাভ করে সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন মাহবুবর রহমান চৌধুরী। কিন্তু নবনির্বাচিত সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী এর যোগসাজেশে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক কমিটি বাতিল করে দেওয়া হল এবং ৬মাসের জন্য এড হক কমিটির দায়িত্ব পেলেন শেখ টিপু চৌধুরী।

শেখ টিপু চৌধুরীর মেয়াদ শেষে নির্বাচনে জয়লাভ করেন বর্তমান সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী। কিন্তু স্বার্থান্বেষী মহলের অভিযোগে ও সাংসদের যোগসাজেশে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক কমিটি আবারো বাতিল করে দেওয়া হল। পরবর্তীতে হাইকোর্টের অর্ডারে সভাপতির দায়িত্বে বহাল থাকেন আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী।

অভিযোগকারীরা হাইকোর্টে আপিল করলে উচ্চ আদালতের বিভিন্ন শুনানির কারণে স্থগিত করা হয় কমিটি। উচ্চ আদালতে শুনানি থাকা অবস্থায় অবৈধভাবে ৫ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে ৬ মাসের জন্য পূণরায় এড হক কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন শেখ টিপু চৌধুরী।

মেয়াদান্তে শেখ টিপু চৌধুরী কোন নির্বাচন না দেওয়ায় ২ নভেম্বর ২০১৫ সালে ৬ মাসের জন্য পূণরায় এড হক কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ করলেন চন্দনাইশের বর্তমান পৌরসভা মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা। কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও নির্বাচন দেননি বর্তমান পৌরসভা মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা।

কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও নতুন কমিটি না হওয়ায় বিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম দেখা দেয়। বর্তমান সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী পূণরায় শেখ টিপু চৌধুরীকে এড হক কমিটির দায়িত্ব দেওয়ার সুপারিশ করলেও চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শাহেদা ইসলাম তা নাকচ করে দেন। তার হস্তক্ষেপে ২০১৪ সালে সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী করা অভিযোগ তুলে নিলে ১২ জানুয়ারি ২০১৭ সালে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তৎকালীন ইউ এন ও লুৎফুর রহমান।

ইউ এন ও ২০১৭ সালের মে মাসে নির্বাচনের আয়োজন করলে নির্বাচনে জয়লাভ করে ০৮ জুন, ২০১৭ দায়িত্ব গ্রহণ করেন বর্তমান কমিটি।

দায়িত্ব গ্রহণ করেই বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করেন বর্তমান কমিটির সভাপতি আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী। বিভিন্ন বাঁধা পেড়িয়ে পূর্ণতা দিয়েছেন শত বছরের পুরোনো গাছবাড়িয়া এন জে মাধ্যমিক বিদ্যালয় কে।

গাছবাড়িয়া নিত্যানন্দ গৌরচন্দ্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়

বিদ্যালয়ের প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করতে খরচ করেছেন প্রায় ৭৫ লক্ষ টাকা। যার সাড়ে ৩ লাখ টাকা জেলা প্রশাসন অনুদান, ২ লাখ টাকা উপজেলা পরিষদ অনুদান, প্রায় ২০ লাখ টাকা বিদ্যালয়ের ফান্ড, ২৬ লাখ টাকা ব্যাক্তিগত ফান্ড এবং বাকি টাকা বিভিন্ন শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তির অনুদান। এছাড়াও শতবর্ষফুর্তি আয়োজনে খরচ করেছেন প্রায় ৬০ লাখ টাকা।

বিদ্যালয়ের এসব উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পন্ন করতে গিয়ে সম্মুখীন হয়েছেন বিভিন্ন ধরণের ষড়যন্ত্রের। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মহলের হুমকির মুখে পড়েছেন বর্তমান কমিটি।

এদিকে নিজেদের বিদ্যালয়কে নতুনভাবে দেখে উচ্ছাসিত ছাত্রছাত্রীরা। বিদ্যালয়ে নিয়মিত উপস্থিত হচ্ছে তারা। নিয়মিত শ্রেণীকার্যক্রম চলার পাশাপাশি দুর্বলদের জন্য রয়েছে স্পেশাল এক্সট্রা কেয়ার।

নাঈম ইসলাম নামের নবম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী বলেন, বর্ষাকালে আমরা ক্লাস করতে পারতাম না। এখন বিদ্যালয়ে ক্লাস করতে সমস্যা হয়না। নতুন ফ্যান লাগিয়েছে তাই গরম লাগেনা।

বিদ্যালয়ের প্রধান ফটক

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর মোহাম্মদ বলেন, আগের চাইতে বর্তমানে পড়ালেখার মান, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি, শিক্ষক শিক্ষিকাদের সুযোগ-সুবিধা সব বেড়েছে। অদূর ভবিষ্যৎ গাছবাড়িয়া এন জে মাধ্যমিক বিদ্যালয় চন্দনাইশের শীর্ষ বিদ্যালয়ের স্থান দখল করবে এই প্রয়াস আমাদের।

আব্দুল কৈয়ুম চৌধুরী বলেন, বিদ্যালয়টিকে একটি আদর্শ বিদ্যালয়ে রুপ দেওয়ার ইচ্ছা আছে। আমি মনে করি সকল বাঁধা অতিক্রম করে আমরা সফল হয়েছি। বিদ্যালয়ের সরকারি গেজেট প্রকাশ হয়েছে এতে আমি অনেক খুশি। যতদিন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে আছি বিদ্যালয়ের জন্য কাজ করে যাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email