ঈদে তরুণদের পছন্দ রঙিন পাঞ্জাবি

মোঃ দেলোয়ার হোসেন, চন্দনাইশঃ পাঞ্জাবি বরাবরই বাঙালি ছেলেদের পছন্দের পোশাক। যে কোন উৎসব পাঞ্জাবির প্রতি ছেলেদের বাড়তি আকর্ষণ যোগ করে। আর সেটা যদি হয় ঈদ উৎসবে তাহলে আর কথাই নেই।

ঈদের দিন সকালে গোসলের পর পাঞ্জাবি গায়ে কোলাকুলির মধ্যে দিয়ে শুরু হয় ঈদ আনন্দ। পছন্দের পাঞ্জাবি কেনার জন্য রমজানের শুরু থেকেই ছেলেদের প্রস্তুতি চলে। এবারের ঈদেও তার ব্যতিক্রম নয়। শুরু থেকেই শপিং মল কিংবা দর্জি দোকানে যুবকদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মত। পাঞ্জাবি কেনাকাটার আনন্দ থেকে পিছিয়ে নেই শিশু থেকে বুড়োরাও। ক্রেতাদের পছন্দ মাথায় রেখে ফ্যাশন হাউজগুলোও বাহারি নকশার পাঞ্জাবির পসরা সাজিয়েছে। ফ্যাশন ডিজাইনারদের মতে এবারের ঈদে পাঞ্জাবিতে রয়েছে শর্ট, সেমি লং, ট্রেডিশনাল প্যাটার্ন। আরামের দিকে নজর রেখে হাল্কা রঙ দিয়ে পাঞ্জাবির কাপড়ে সুতিকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছে। পাশাপাশি সিল্ক, সেমি সিল্ক, জর্জেট, ভয়েল, খাদি, এন্ডি কাপড়ও রয়েছে। উপজেলার দোহাজারীতে হাজারী শপিং, হাজারী টাওয়ার, খান প্লাজা, শাহসুফি সুপার মার্কেট, সালাম প্লাজা, সিটি সেন্টার, গাছবাড়ীয়াতে গণি সুপার মার্কেট, সিদ্দিক বাছুরা শপিং কমপ্লেক্স, চৌধুরী সুপার মার্কেট, বাগিচাহাটে বিলকিস সুপার মার্কেট, বৈলতলীতে ইউনুস মার্কেট, সিরাজ মার্কেট, রওশনহাট এলাকাসহ বিভিন্ন মার্কেটগুলোতে বাহারি পাঞ্জাবি তুলেছেন বিক্রেতারা। শপিং মলগুলো ঘুরে দেখা যায় ঈদ বাজারে সুতি, পিওর তশর, সিল্ক, ধুপিয়ানা সিল্ক, খদ্দর কটন, জামদানিসহ বিভিন্ন ধরনের পাঞ্জাবি এসেছে বাজারে। হলুদ, নীল, বেগুনি, কালো, ম্যাজেন্টা, কমলাসহ বিভিন্ন রঙের বাহারি ডিজাইন পাঞ্জাবি তুলেছেন ক্রেতাদের আকর্ষণ করতে। বাহুবালি, সুলতান, রইস, পি.কে, টিউবলাইটসহ বিভিন্ন নামের চোখ ধাঁধানো পাঞ্জাবির প্রতি তরুণ ক্রেতাদের মনোযোগ বেশি দেখা যায়। বিক্রেতারা পাঞ্জাবির দাম হাঁকছেন ৩ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

পছন্দের পাঞ্জাবি কিনতে বিভিন্ন মার্কেটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সৌখিন ক্রেতারা। ইন্ডিয়ান ব্র্যান্ড মান্যবর ঈদে পাঞ্জাবির ফ্যাশনে নতুন করে যোগ হয়েছে। ১২ রঙের কটি দিয়ে সুতি কাপড়ের সাদা রঙের পাঞ্জাবি পাজামা তৈরি হয়েছে। অনেকেই নিজের পছন্দসই পাঞ্জাবি বানাতে দর্জির শরণাপন্ন হচ্ছেন। যারা একটু বিত্তবান তারা যাচ্ছেন পাঞ্জাবির জন্য আড়ং নামক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে। ক্রেতাদের মতে আড়ং ব্র্যান্ড, মান, দাম সবই ভাল। ক্রেতাদের মতে, দেশীয় পোশাক কিনলে নিজের মধ্যে দেশাত্মবোধ কাজ করে। অনেক সময় বিদেশি পোশাকের চেয়ে দেশীয় পোশাকের দাম বেশি হয়। বিক্রেতাদের মতে তারা বিভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবি কালেকশন করেছেন। তবে বিক্রি এখনও কম হচ্ছে। ঈদের দুইদিন আগে এমনকি ঈদের দিন সকালেও পাঞ্জাবি বিক্রি হয় বলে তারা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email