আমেরিকার হুমকি নাকচ করে এস-৪০০ কিনছে তুরস্ক

রাশিয়ার এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার জন্য তুরস্ক যে পরিকল্পনা গ্রহন করেছে এর জন্য দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার ওয়াশিংটনের হুমকি নাকচ করে দিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু। আমেরিকার এ ধরনের হুমকি কোনো কাজে আসবে না বলেও জানান তিনি। খবর পার্সটুডের।

গতকাল (শুক্রবার) ন্যাটোর সদর দপ্তর ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত সংস্থাটির শীর্ষ বৈঠকের অবকাশে নতুন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও’র সঙ্গে বৈঠকের পর এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে চাভুসওগ্লু বলেন, ‘যদি তোমরা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় করো তাহলে তোমাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করব’ -ওয়াশিংটনের এ ধরনের হুমকির মাধ্যমে তুরস্ক প্রভাবিত হবে না। আঙ্কারা কখনো এ ধরনের সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না। বরং ভবিষ্যতে আঙ্কারা-ওয়াশিংটন কিভাবে একসঙ্গে কাজ করতে পারে সে বিষয়ে আলোচনার জন্য তুরস্ক সবসময় প্রস্তুত আছে।

এর আগে রাশিয়ার কাছ থেকে এ ক্ষেপণাস্ত্র সংগ্রহের বিষয়ে কথা বলেন তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফিকরি ইশিক। তিনি বলেন, তুরস্ক নিজস্ব প্রযুক্তিতে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরিতে মনোযোগ দিয়েছে। এজন্য যথেষ্ট সময় প্রয়োজন। তবে আমাদের জরুরি ভিত্তিতে এই ব্যবস্থা দরকার।

পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর পক্ষ থেকে বর্তমানে তুরস্ককে ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহ করা হচ্ছে। তবে প্রতিরক্ষা খাতে পুরোপুরি ইউরোপের ওপর নির্ভরশীল থাকতে চায় না আঙ্কারা।

রাশিয়ার এস-৪০০ কেনার বিষয়ে আঙ্কারার পরিকল্পনায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গভীর উদ্বেগ জানানোর পর মেভলুত চাভুসওগ্লুর পক্ষ থেকে এ বক্তব্য এলো। এর আগে ন্যাটোতে নিযুক্ত মার্কিন কূটনীতিক কাই বেইলি তুরস্কের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছিলেন, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনা হলে আঙ্কারাকে কঠোর পরিণতি ভোগ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

নিউজ টি শেয়ার করুন :)

Instagram
LinkedIn
Share
Follow by Email